বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ১১:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নোটিশ :
Wellcome to our website...

জাল টাকা দিয়ে পণ্য কিনতে ধরা খেলো যুবক

বাবুল রহমান রবিন গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি / ৪২৭ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

গাইবান্ধায় আজ মঙ্গলবার দুপুরে গাইবান্ধা শহরের নিউমার্কেট এলাকায় দুটি বইয়ের দোকান ও ১টি ইলেকট্রিক্যাল দোকানে ১ হাজার টাকা দিয়ে পণ্য কিনতে যায় এই প্রতারক চক্রের সদস্য সাদ্দাম হোসেন জাল টাকা নিয়ে বইয়ের দোকান থেকে বইসহ কলম খাতা কিনতে গেলে সাদ্দাম হোসেন নামের এক প্রতারক চক্রের সদস্য আটক হয় সাধারণ জনতার কাছে

এসময় তার সাথে থাকা আরেক প্রতারক চক্রের সদস্য সুযোগ বুঝে পালিয়ে যায় তড়ি ঘরি করে।প্রতারক চক্রের দুজন হলেন টাঙ্গাইল সদর ও নেত্রকোনার বাসিন্দা। সাদ্দাম টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বকুলপুর গ্রামের আব্দুল রাজ্জাকের ছেলে।

জানা যায়, গাইবান্ধা শহরের বিভিন্ন মার্কেটে গিয়ে সাদ্দাম ও তার সহযোগীরা পণ্য কেনার নাম করে জাল চালিয়ে আসছিল। এরকম প্রতারণা নিউমার্কেটে সন্ধ্যায় পরপর তিনটি দোকানে করলে এই সাদ্দাম হোসেন ধরা পড়ে সাধারণ মানুষের কাছে। পরে তাকে গণপিটুনি দেওয়া হয়।মূলত খালাহাটি গ্রামের ফজলুল হক সরকারের ছেলে একে এম সাইফুল ইসলাম শাওন লাইব্রেরিতে জাল টাকা নিয়ে প্রতারনা করতে গেলে ধরা পরে যায় সে ও তার সহযোগী।এসময় তার কাছ থেকে একটি ব্যাগে কসমেটিক পণ্য,চামচ,ধানের বীজও পাওয়া যায়। এরপর পুলিশকে জানালে তৎক্ষণাৎ পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী বই বিক্রেতা আধুনিক লাইব্রেরি, আবু রাহেন কাচলাদার বলেন এভাবেই এরা পণ্য ক্যাডার কথা বলে জাল টাকা চালিয়ে লুট করে নিয়ে যাচ্ছে গাইবান্ধা বাসীকে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, এরা দুজন এই নিউমার্কেটে বিভিন্ন দোকানে গিয়ে এভাবে টাকা লুট করতে ছিল। শাওন লাইব্রেরীতে সন্দেহ হলে সাধারণ মানুষ এদের আটক করার চেষ্টা করে। একজনকে আটক করলেও আরেকজন পালিয়ে যায়। এদের শাস্তি হওয়া দরকার।

এসআই মো. ইসমাইল জানান , বই দোকানের মালিকদের ফোনে জানতে পারি এই প্রতারক চক্র থানায় সোর্পদ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর